‘ইত্যাদি’ এবার ফেনী পাইলট হাইস্কুল মাঠে

17

ইতিহাস, ঐতিহ্য, সভ্যতা, সংস্কৃতি, পর্যটন ও দর্শনীয় স্থানগুলোতে গিয়ে ধারণ করা হয় হানিফ সংকেতের জনপ্রিয় বিটিভির ম্যাগাজিন অনুষ্ঠান ‘ইত্যাদি’। এরই ধারাবাহিকতায় ইত্যাদির এবারের পর্ব ধারণ করা হবে মহান মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি বিজড়িত ফেনী সরকারি পাইলট হাই স্কুল মাঠে। গত শনিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় ফেনী সরকারি পাইলট হাই স্কুল মাঠে ধারণ করা হবে এবারের ইত্যাদির কিছু অংশ। এই মাঠকে ঘিরে রয়েছে মহান মুক্তিযুদ্ধের নানা ইতিহাস। অনুষ্ঠানের মঞ্চের ব্যাকগ্রাউন্ড হিসেবে ব্যবহার করা হবে দক্ষিণ পূর্ব বাংলার ঐতিহ্যবাহী ফেনী সরকারী কলেজের পুরনো ভবন। ইত্যাদির কয়েকটি অংশ ধারণ করা নিয়ে স্কুল মাঠে চলছে পুরোদমে প্রস্তুতি।

ফাগুন অডিও ভিশনের প্রযোজনায় অনুষ্ঠানের বিভিন্ন পর্ব সাজিয়েছে। এর মধ্যে আঞ্চলিক গানের মূল শিল্পীর সঙ্গে ১০০ স্থানীয় শিল্পী দলীয় নিত্য পরিবেশন করবে। তাছাড়াও ফেনীর প্রকৃতিকে নিয়ে আলী আকবর রুপুর কথা ও সুরে ‘পাহাড় নদী বহমান এই ফেনী’ গানটিতে কণ্ঠ দিবেন শিল্পী ডলি সায়ন্তনী। এছাড়াও বেশ কয়েকটি স্টেইজ পারফরমেন্স, পুরস্কার বিতরণ, শিক্ষামূলক কয়েকটি প্রতিবেদন প্রচার করা হবে। এদিকে ইত্যাদির পর্ব ধারণের কথা সবার মুখে মুখে। এ জেলা শহরসহ আশপাশের এলাকায় বইছে উৎসবের আমেজ।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ইত্যাদি ধারণ অনুষ্ঠান খবরটি নিয়ে ব্যাপক সাড়া পড়েছে। স্কুল মাঠে ঘুরতে আসা আবদুল্লাহ আল-আহনাফ বলেন, আগে টিভিতে ইত্যাদি দেখেছি। এবার বাস্তবে দেখব আশা করেছিলাম। কিন্তু এখনো আমন্ত্রণপত্র পাইনি। তারপরও তৃপ্তি হলো আমার এলাকায় ইত্যাদি হবে এটাই প্রাপ্তি। এদিকে মঙ্গলবার অনুষ্ঠানস্থলে ধারণ করা স্থান পরিদর্শনে যান ফেনী জেলা প্রশাসক আবু সেলিম মাহমুদ-উল হাসান, পুলিশ সুপার জাকির হাসান ও ফেনী পৌরসভা মেয়র নজরুল ইসলাম স্বপন মিয়াজীসহ প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা। ইত্যাদি অনুষ্ঠানে শুধুমাত্র আমন্ত্রিত অতিথিরা অনুষ্ঠান রেকর্ডিং স্থলে উপস্থিত থাকতে পারবেন। নিরাপত্তা ও অনুষ্ঠান রেকর্ডিংয়ের স্বার্থে ইত্যাদি কর্তৃপক্ষ এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ফেনীর পুলিশ সুপার জাকির হাসান বলেন, মঞ্চস্থলের সার্বিক নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হবে।