ইউক্রেনে ড্রোন হামলা ঠেকাতে সহায়তা পাঠাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র

3

রাশিয়ার ড্রোন হামলা ঠেকানোর পাশাপাশি ইউক্রেনের আকাশ প্রতিরক্ষাব্যবস্থা শক্তিশালী করতে কিয়েভকে আরও সাড়ে ২৭ কোটি ডলারের সামরিক সহায়তা দিতে যাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র। এ সহায়তার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি ও নথির বরাত দিয়ে রয়টার্সের বৃহস্পতিবারের প্রতিবেদনে বিষয়টি জানানো হয়েছে। স্থানীয় সময় গত শুক্রবার যুক্তরাষ্ট্র এ সামরিক সহায়তার কথা ঘোষণা করতে পারে। রয়টার্স জানায়, এ সামরিক সহায়তার মধ্যে হাই মোবিলিটি আর্টিলারি রকেট সিস্টেম (হিমার্স), গোলাবারুদ, সেনা যান ও জেনারেটর থাকবে। এ নিয়ে হোয়াইট হাউস ও যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় নিরাপত্তা কাউন্সিলের মুখপাত্রের কাছ থেকে কোনো মন্তব্য পায়নি রয়টার্স। বার্তা সংস্থাটি আরও জানায়, প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের স্বাক্ষর হওয়ার আগ পর্যন্ত এ সামরিক সহায়তার সরঞ্জাম এবং আকারে পরিবর্তন আসতে পারে।

এই সামরিক সহায়তা যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেনশিয়াল ড্রডাউন অথরিটির (পিডিএ) আওতায় দেয়া হবে, যাতে দ্রুত তা ইউক্রেন পৌঁছে যায়। যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষা সদর দপ্তর পেন্টাগনের জ্যেষ্ঠ এক কর্মকর্তা গত মাসে জানান, কিয়েভে আকাশ প্রতিরক্ষাব্যবস্থা সরবরাহে বাধা তৈরির পাশাপাশি আকাশসীমায় নিয়ন্ত্রণ রাখতে রাশিয়া ক্ষেপণাস্ত্র হামলা বাড়িয়েছে। এ হামলা ঠেকাতে কয়েক সপ্তাহ আগে ইউক্রেনকে অত্যাধুনিক ‘নাসামস’ প্রতিরক্ষাব্যবস্থা দেয় আমেরিকা। গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে বিশেষ সামরিক অভিযান শুরু করে রাশিয়া। যুদ্ধ শুরুর পর এখন পর্যন্ত কিয়েভকে ১৯ দশমিক ১ বিলিয়ন (১ হাজার ৯০১ কোটি) ডলারের সামরিক সহায়তা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। আগামী বছর ইউক্রেনকে আরও ৮০ কোটি ডলার সামরিক সহায়তা দিতে গত বৃহস্পতিবার ভোট দেন যুক্তরাষ্ট্রের আইন প্রণেতারা। আমেরিকা ছাড়াও মিত্র দেশগুলো ইউক্রেনকে আকাশ প্রতিরক্ষাব্যবস্থা সরবরাহ করছে।