আয়কর রিটার্ন প্রস্তুতকারী নিয়োগ পরীক্ষা কার্যক্রম হাইকোর্টে স্থগিত

6

আয়কর রিটার্ন প্রস্তুতকারী (টিআরপি) নিয়োগ পরীক্ষা কার্যক্রম ছয় মাসের জন্য স্থগিত করে আদেশ দিয়েছেন আদালত।
বিচারপতি নাইমা হায়দার ও বিচারপতি কাজী জিনাত হক সমন্বয়ে গঠিত একটি হাইকোর্ট ডিভিশন বেঞ্চ সোমবার এ আদেশ দেন।
বিষয়টি নিয়ে আনা রিটের ওপর আদালতে শুনানি করেন সিনিয়র অ্যাডভোকেট শাহ মঞ্জুরুল হক, অ্যাডভোকেট পলাশ চন্দ্র রায় ও অ্যাডভোকেট মো. আনোয়ার হোসেন।
আইনজীবীরা জানান, বাংলাদেশের বর্তমান আয়কর আইন-২০২৩ এ আয়কর রিটার্ন প্রস্তুতকারী বা ট্যাক্স রিটার্ন প্রিপেয়ার (টিআরপি) নামে কোনো কিছু না থাকা সত্ত্বেও জাতীয় রাজস্ব বোর্ড আয়কর রিটার্ন প্রস্তুতকারী বিধিবালা জারি করে। বর্তমানে বাংলাদেশে প্রায় ৫০ হাজার কর আইনজীবী রয়েছেন, যারা বাংলাদেশ ট্যাক্স ল’ ইয়ার্স অ্যাসোসিয়েশনের ৬৮টি বারের মাধ্যমে নিয়ন্ত্রিত হয়ে আসছে।
জাতীয় রাজস্ব আহরণে কর আইনজীবীরা ভারতীয় উপমহাদেশে আয়কর আইন, ১৯২২ প্রণয়নের পর থেকে আজ পর্যন্ত সাফল্যের সাথে কাজ করে আসছে। আয়কর আইনজীবীগণ আয়কর রিটার্ন প্রস্তুতকরণ, রিটার্ন দাখিল, করদাতার পক্ষে আয়কর মামলা পরিচালনা ও প্রয়োজনীয় কাগজপত্রাদি দাখিল, আপিল-ট্রাইব্যুনালসহ সকল ধরনের কার্যক্রম পরিচালনা করে থাকেন। কর আইনজীবীদের পাশ কাটিয়ে আয়কর রিটার্ন প্রস্তুতকারী নিয়োগ করা হলে, আয়কর অঙ্গনে হাজার হাজার দালাল সৃষ্টি হবে, রাজস্ব ফাঁকিসহ কর আদায়ে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি হবে বলে মনে করেন কর আইনজীবীগণ।
বিষয়টি নিয়ে কর আইনজীবীদের কেন্দ্রীয় সংগঠন বাংলাদেশ ট্যাক্স ল’ ইয়ার্স অ্যাসোসিয়েশন ও ঢাকা ট্যাক্সেস বার অ্যাসোসিয়েশন যৌথভাবে রিট পিটিশন দায়ের করে।
রিটের ওপর প্রাথমিক শুনানি শেষে আয়কর রিটার্ন প্রস্তুতকারী নিয়োগ পরীক্ষা কার্যক্রম ছয় মাসের জন্য স্থগিত করেন। পাশাপাশি বিষয়টি নিয়ে কারণ দর্শাতে সংশ্লিষ্টদের প্রতি রুলও জারি করেন উচ্চ আদালত।