দৈনিক গৌড় বাংলা

মঙ্গলবার, ২৮শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ১৪ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ২০শে জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি

আর বাংলা সিনেমা নির্মাণ করবেন না মারুফ

ইতিহাস’খ্যাত নায়ক কাজী মারুফ। গেল ঈদে দেশের প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পায় তার অভিনীত ও নির্মিত সিনেমা ‘গ্রীন কার্ড’। প্রায় ৪ কোটি ৬৩ লাখ টাকা বাজেটের এই সিনেমার প্রচারণায় সুদূর যুক্তরাষ্ট্র থেকে দেশে ছুটে আসেন তিনি। তাও আবার সপরিবারে। সিনেমাটির মুক্তির আগে একটি টেলিভিশন শোতে কাজী মারুফ দাবি করেন, ‘বাংলাদেশে শাকিব খান ও আমার পরে কোনো নায়ক নেই।’ জানান, দেশের প্রেক্ষাগৃহে সগৌরবে চলবে যুক্তরাষ্ট্রে ধারণকৃত তার ‘গ্রীন কার্ড’ সিনেমাটি। কিন্তু এমনটি না হয়ে, হয়েছে উল্টোটা। মুক্তির চার দিনের মাথায় দর্শকখরায় ‘গ্রীন কার্ড’ প্রেক্ষাগৃহ থেকে নামিয়ে ফেলার সিদ্ধান্ত নেয় হল কর্তৃপক্ষ। এতে হতাশ হয়েছেন নায়ক। সিদ্ধান্ত নিয়েছেন, আর বাংলা সিনেমা নির্মাণ করবেন না তিনি।

কাজী মারুফের ভাষ্য, ‘অভিনয় থেকে দূরে থাকলেও এই ইন্ডাস্ট্রি থেকে দূরে থাকা সম্ভব না। দেশের মানুষ আমাকে চিনেছে একজন অভিনেতা হিসেবে। এই ইন্ডাস্ট্রিতে নিজের একটি দায়বদ্ধতা আছে। সে আশা নিয়ে, যুক্তরাষ্ট্রে বসেই বাংলা ছবি বানিয়েছি। “গ্রীন কার্ড”র পেছনে অনেক শ্রম দিয়েছি। এর গল্পটা অনেক সুন্দর। আমার বিশ্বাস ছিল, এদেশের মানুষ ছবিটি দেখবে। শুধু তাই না, গল্পটিও তাদের ভালো লাগবে ও মুখে মুখে থাকবে।’ তিনি আরও বলেন, ‘কিন্তু ছবিটি মুক্তির পর আমি হতাশ হয়েছি। অনেক কিছু বলার ছিল! যাই হোক নিজেই এখন সিদ্ধান্ত নিয়েছি, আর বাংলা ছবি নির্মাণ করব না। যুক্তরাষ্ট্রে ফিরে বিদেশি ভাষার সিনেমার বানাবো।’ মারুফের হিসাবমতে, ৪ কোটি ৬৩ লাখ টাকা ব্যয়ে নির্মিত ‘গ্রীন কার্ড’ মুক্তির পর প্রেক্ষাগৃহে থেকে লাখ টাকাও আসেনি। ওটিটি, টেলিভিশনে বিক্রির পরও এত বিনিয়োগ ওঠার কোনো সম্ভাবনাও দেখছেন না তিনি। কাজী মারুফ জানান, আগামী মাসের শুরুর দিকেই পরিবার নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রে ফিরে যাবেন তিনি।

About The Author

This will close in 0 seconds