আর্মেনিয়া-আজারবাইজান সংঘাতে ১০০ সৈন্য নিহত

3

আর্মেনিয়া ও আজারবাইজানের বিতর্কিত নাগোর্নো-কারাবাখ অঞ্চলে ২০২০ সালের যুদ্ধের পর সবচেয়ে মারাত্মক সংঘাতে প্রায় ১০০ সৈন্য নিহত হয়েছেন। গত সোমবার রাত থেকে গত মঙ্গলবার ভোর পর্যন্ত দুই দেশের সীমান্তে লড়াইয়ে এ প্রাণহানি ঘটে। ডয়েচে ভেলের খবরে বলা হয়েছে, গত সোমবার রাতে আর্মেনিয়া এবং আজারবাইজানের মধ্যে লড়াই আবার জ¦লে উঠে। উভয়পক্ষই তীব্র আর্টিলারি ফায়ারিং করতে শুরু করে। এতে প্রায় ১০০ জন সৈন্য নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। গত মঙ্গলবার ভোরে আজারবাইজানি বাহিনী সীমান্তের বেশ কয়েকটি স্থানে আর্মেনীয় সেনাদের ওপর গোলাবর্ষণ করে। আজারবাইজান বলছে, তারা সীমান্তের কাছে আর্মেনীয় ল্যান্ডমাইন এবং অস্ত্র তৈরির প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে।

এ সময় পাল্টা গুলি চালায় আর্মেনিয়াও। আর্মেনিয়ার প্রধানমন্ত্রী নিকোল পাশিনিয়ান জানান, রাতভর লড়াইয়ে দেশটির ৪৯ সেনা নিহত হয়েছেন। অন্যদিকে নিজেদের ৫০ সেনা নিহত হওয়ার কথা জানিয়েছে আজারবাইজানের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়। প্রতিবেশী দুটি দেশ এখন পর্যন্ত তিনবার পুরোদমে যুদ্ধে জড়িয়েছে। পাশাপাশি তিন দশক ধরে নিয়মিত বিরতিতে ছোটখাটো সংঘর্ষে জড়িয়েছেন দুই দেশের সেনারা। সর্বশেষ মঙ্গলবার এ সংঘাত বন্ধে রাশিয়ার মধ্যস্থতায় একটি যুদ্ধবিরতি চুক্তি হয়েছে। এই ভয়াবহ যুদ্ধ নাগোর্নো-কারাবাখ অঞ্চলের কাছে সংঘটিত হয়েছে, যেটি আজারবাইজানের একটি এলাকা এবং সেখানে জাতিগত আর্মেনীয় বিচ্ছিন্নতাবাদীরা ১৯৯১ সালে একটি বিচ্ছিন্ন প্রজাতন্ত্র ঘোষণা এবং পরে আর্টসাখ নামে পরিচিতি পায় জায়গাটি।