আপনারাই প্রয়াসের চালিকা শক্তি : প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে কর্মীদের প্রতি হাসিব হোসেন

220

চাঁপাইনবাবগঞ্জে প্রয়াস মানবিক উন্নয়ন সোসাইটির ২৯তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদ্যাপিত হয়েছে। সোমবার বিকেলে জেলাশহরের বেলেপুকুরে সংস্থাটির নকীব হোসেন মিলনাতয়নে এ উপলক্ষে এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।
অনুষ্ঠানে প্রধান কার্যালয়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা অংশগ্রহণ করেন। এছাড়াও ভার্চুয়ালি শাখা ইউনিট ও জোন কার্যালয়ের মাঠপর্যায়ের কর্মকর্তারা যুক্ত হন।
প্রথমে মাঠপর্যায়ের কর্মকর্তারা প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন এবং প্রয়াসের কার্যক্রম সারাদেশে ছড়িয়ে দেয়ার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।
বক্তব্যের শুরুতেই জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ তাঁর পরিবারের সদস্যগণ, জাতীয় চার নেতা, মুক্তিযুদ্ধকালীন সরকার, মুক্তিযুদ্ধে ৩০ লাখ শহীদ ও সম্ভ্রমহারা ২ লাখ মা-বোন, যাঁদের ত্যাগের বিনিময়ে অর্জিত হয়েছে বিজয় তাঁদেরকে গভীর শ্রদ্ধায় স্মরণ করেন সংস্থাটির প্রতিষ্ঠাতা ও নির্বাহী পরিচালক হাসিব হোসেন। তিনি প্রয়াসের প্রয়াত প্রেসিডেন্ট আনোয়ারুল ইসলাম, কোষাধ্যক্ষ প্রশান্ত কুমার সাহা, প্রয়াসের সাধারণ পরিষদের সদস্য মরহুম আনসার হোসেন, নির্বাহী পরিষদের সদস্য নকীব হোসেনসহ সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত এবং প্রয়াসের প্রয়াত সদস্যদেরও গভীর শ্রদ্ধায় স্মরণ করেন।
হাসিব হোসেন বলেন- রাষ্ট্রীয়ভাবে ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে একটি উন্নত রাষ্ট্রে উন্নীত করার যে লক্ষ্য নির্ধারণ করা হয়েছে তা বাস্তবায়নে আমরা সবাই কাজ করে যাচ্ছি। প্রয়াসের অগ্রগতি তুলে ধরতে গিয়ে হাসিব হোসেন সংস্থাটির কর্মকর্তা-কর্মচারীদের শ্রম এবং কর্মস্পৃহার কথা তুলে ধরে বলেন- আপনাদের ঘাম আর সফলভাবে কাজ করার জন্যই প্রয়াস আজ এতদূর এগোতে পেরেছে। আমি আপনাদের ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানাই। এ প্রসঙ্গে তিনি প্রয়াসের মাঠপর্যায়ের কর্মকর্তাদের পরামর্শ দিয়ে বলেনÑ আপনাদের অনেকের মধ্যেই কাজ করার আগ্রহ আছে, তবে হয়তো কোনো কারণে স্পৃহা পাচ্ছেন না। আমি বলব, যারা দক্ষ তারা তাকে উৎসাহ দিয়ে কাজ করবেন। তাদের মধ্যে কাজকে জয় করার উদ্দীপনা দেখতে পেয়েছি। সদস্যদের সঙ্গে ভালো আচরণ করে তাদেরকে সঞ্চয়ী হতে উদ্বুদ্ধ করবেন। তাদের ছোট ছোট সঞ্চয় তাদেরকে স্বাবলম্বী করে গড়ে তুলবে। প্রতিষ্ঠানও লাভবান হবে।
হাসিব হোসেন বলেন- আমি হয়ত কখনো আপনাদের বকাঝকা করেছি। সেটা করেছি আপনাদের কাজের জন্য এবং সংস্থার উন্নয়নের জন্য। আপনারা তা ক্ষমাসুন্দর দৃষ্টিতে দেখে উন্নয়নের পথে এগিয়ে যাবেন। তিনি বলেন- প্রায় সাড়ে ৮০০ সহকর্মী একসঙ্গে একটি বড় টিম হয়ে কাজ করে সংস্থাকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে। হাসিব হোসেন বলেন- আপনাদের অনেক দাবি আছে, আমরা পারিপার্শ্বিক বিভিন্ন সমস্যার কারণে তা পূরণ করতে পারছি না। তবে আমি আশাবাদী, আমরা পারিপার্শ্বিক সমস্যাগুলো কাটিয়ে উঠে আপনাদের চাহিদাগুলো পূরণ করতে পারব। আপনাদের ১০ শতাংশের যে বিষয়টি ছিল আমরা তা জানুয়ারি থেকে চালু করব। আপনাদের কাছ থেকেও কমিটমেন্ট লাগবে। সদস্যদের মন জয় করে ঋণের টাকা ফেরতের চেষ্টা করবেন। ঋণ ফেরত পেলে আবার তাকেই দেয়া হবে।
তিনি বলেন- আমরা আইনগতভাবে দেশের ৬৪ জেলায় কাজ করার যোগ্যতা রাখি। ইতোপূর্বে আমরা দিনাজপুর, ঠাকুরগাঁও, কক্সবাজার, খাগড়াছড়ি জেলায় কাজ করেছি। এখনো বেশ কয়েকটি জেলায় কাজ করছি। আমাদের ঢাকাতেও অফিস আছে।
হাসিব হোসেন বলেন- আমরা ইতোমধ্যেই আন্তর্জাতিক অঙ্গনে দাতা সংস্থার মাধ্যমে জায়গা করে নিয়েছি। তিনি বলেন- আমাদের সহযোগী প্রতিষ্ঠান রেডিও মহানন্দা, প্রয়াস ফোক থিয়েটার ইনস্টিটিউটসহ বিভিন্ন প্রকল্প আছে। প্রয়াস হেলথ কেয়ার থেকে উন্নতি লাভ করে এখন হয়েছে প্রয়াস হসপিটাল। আগামী ১ জানুয়ারি এর উদ্বোধন হবে। আপনারা সবাই এখানে চিকিৎসা সেবা পাবেন। আপনারা সহযোগিতা করবেন। তিনি বলেন- আপনারাই প্রয়াসের মূল চালিকা শক্তি, আপনাদের সবার সহযোগিতামূলক মনোভাব, কর্মদক্ষতা, নিষ্ঠা আর কাজের মাধ্যমে আমরা ভবিষ্যতে আরো বহুদূর এগিয়ে যেতে পারব।
অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন রেডিও মহানন্দার স্টেশন ম্যানেজার আলেয়া ফেরদৌস। অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন- প্রয়াসের পরিচালক মুখলেছুর রহমান, জ্যেষ্ঠ উপপরিচালক নাসের উদ্দিন, সহকারী পরিচালক মমিনুল ইসলাম, সমন্বিত কৃষি ইউনিটের ফোকাল পার্সন ফারুক আহমেদ, দাসত্ব ও মানব পাচারের বিরুদ্ধে লড়াই প্রকল্পের ব্যবস্থাপক দুরুল ইসলাম, এসইপি প্রকল্প ব্যবস্থাপক কৃষিবিদ জহুরুল ইসলাম, মানবসম্পদ ও প্রশাসন বিভাগের ব্যবস্থাপক ইশরাত জাহান, গৌড় বাংলার ব্যবস্থাপনা সম্পাদক আজিজুর রহমান শিশির ও বার্তা সম্পাদক সাজিদ তৌহিদ।
ভার্চুয়ালি বক্তব্য দেন- নওগাঁ জোন প্রধান আবুল কালাম আজাদ, আঞ্চলিক ব্যবস্থাপক রাশেদুল ইসলাম, ইউনিট ব্যবস্থাপক মোজাম্মেল হক, উপব্যবস্থাপক অলোকা রানী, সিনিয়র অফিসার কারিমা খাতুন।
এসময় সহকারী পরিচালক (নিরীক্ষা) আবুল খায়ের খান, কর্মসূচি ব্যবস্থাপক তানভীর আহমেদ, ফিরোজ আলম, ব্যবস্থাপক (হিসাব) সফিকুল ইসলামসহ প্রয়াসের প্রকল্প ব্যবস্থাপক, সমন্বিত কৃষি ইউনিটসহ বিভিন্ন প্রকল্পের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।
আলোচনা শেষে বিভিন্ন প্রকল্পের পক্ষ থেকে প্রয়াসের নির্বাহী পরিচালক হাসিব হোসেনকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানানো হয় এবং কেক কাটা হয়।