আইপিএল সম্প্রচার স্বত্বের মূল্য কত?

3

যেমন আভাস ছিল, তেমনই আকাশ ছোঁয়া দামে বিক্রি হলো আইপিএলের সম্প্রচার স্বত্ব। আগামী পাঁচ বছরের জন্য এই টুর্নামেন্টের টিভি ও ডিজিটাল স্বত্ব মোট ৩৯ হাজার ৩৫ কোটি রুপিতে বিক্রি করেছে বিসিসিআই। পরবর্তী চক্র ২০২৩ থেকে ২০২৭ সালের সম্প্রচার স্বত্বের জন্য রোববার অনলাইনে নিলাম শুরু হয়। ক্রিকেট ওয়েবসাইট ইএসপিনক্রিকইনফো তাদের সোমবারের প্রতিবেদনে জানায়, প্যাকেজ ‘এ’-তে থাকা ভারতীয় উপমহাদেশের টিভি স্বত্বের প্রতি ম্যাচের জন্য সর্বোচ্চ বিড সাড়ে ৫৭ কোটি রুপি। প্যাকেজ ‘বি’-তে আছে ডিজিটাল (স্ট্রিমিং) স্বত্ব। যার প্রতি ম্যাচের জন্য সর্বোচ্চ বিড ৪৮ কোটি রুপি। প্রথম দিনের নিলাম যখন স্থগিত হয়, তখনই ম্যাচপ্রতি আয়ে আগের চক্রকে ছাড়িয়ে যায় আইপিএল। গতকাল প্যাকেজ ‘এ-এর সর্বোচ্চ বিড ছিল ৫৭ কোটি রুপি এবং প্যাকেজ ‘বি’-এর ৪৮ কোটি রুপি। সব মিলিয়ে প্রতি ম্যাচের মূল্য দাঁড়াচ্ছে ১০৫ কোটি ৫০ লাখ রুপি। এতে সব ধরনের খেলায় ম্যাচ প্রতি আয়ের দিক থেকে এনএফএল ও ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের সঙ্গে শীর্ষ পর্যায়ে জায়গা করে নিতে যাচ্ছে আইপিএল। টিভি স্বত্বের জন্য ম্যাচ প্রতি ৪৯ কোটি রুপি ভিত্তি মূল্য নির্ধারণ করে দিয়েছিল বিসিসিআই। আর ডিজিটাল স্বত্বের জন্য ভিত্তি মূল্য ছিল ৩৩ কোটি রুপি। আইপিএলে প্রতি মৌসুমে ম্যাচ সংখ্যা ৭৪টি। সব মিলিয়ে পাঁচ বছরের জন্য টিভি স্বত্বের মোট মূল্য দাঁড়াচ্ছে ২১ হাজার ২৭৫ কোটি রুপি। আর ডিজিটাল স্বত্বের ১৭ হাজার ৭৬০ কোটি রুপি। দুটি ক্যাটাগরি মিলিয়ে সম্প্রচার স্বত্ব বিক্রি হয়েছে সর্বমোট ৩৯ হাজার ৩৫ কোটি রূপিতে। যা গত চক্রের চেয়ে প্রায় আড়াইগুণ বেশি। সবশেষ চক্রের সম্প্রচার স্বত্ব বিক্রি হয়েছিল ১৬ হাজার ৩৪৭ কোটি ৫০ লাখ রুপিতে। অনলাইন নিলাম এখনও চলমান থাকায় নিলামে বিজয়ীর নাম ঘোষণা করেনি আইপিএল কর্তৃপক্ষ। সম্প্রচার স্বত্বে আরও দুটি ক্যাটাগরি রেখেছে বিসিসিআই। প্যাকেজ ‘সি’ তে প্রতি ম্যাচের ভিত্তি মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ১৬ কোটি রুপি আর প্যাকেজ ‘ডি’ তে ৩ কোটি রুপি। প্যাকেজ ‘এ’ ও ‘বি’ এর সর্বোচ্চ দর নির্ধারণ হয়ে গেলেই বাকি দুই ক্যাটাগরির নিলাম শুরু হওয়ার কথা।