আইপিএলের নিলামে বাংলাদেশের ৯ নারী ক্রিকেটার

15

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের আদলে আগামী মাসে ভারতের মাটিতে প্রথমবারের মতো আয়োজিত হবে ওমেন্স প্রিমিয়ার লিগ (ডব্লিউপিএল)। ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক এ টুর্নামেন্টের নিলামের জন্য ইতোমধ্যে নারী ক্রিকেটারদের তালিকা চূড়ান্ত করেছে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড (বিসিসিআই)। এ তালিকায় জায়গা পেয়েছেন বাংলাদেশের ৯ নারী ক্রিকেটারও। গত সোমবার মুম্বাইয়ে ডব্লিউপিএলের নিলাম অনুষ্ঠিত হবে। প্রাথমিকভাবে একজন ৫২৫ জন নিবন্ধন করা হয়েছিল। তবে নিলামের জন্য চূড়ান্ত তালিকায় রয়েছেন ৪০৯ জন ক্রিকেটার।

তালিকার ২৪৬ জন ভারতীয় এবং বিদেশি ক্রিকেটার ১৬৩ জন। নিলামের চূড়ান্ত তালিকায় জায়গা পাওয়া ৯ ক্রিকেটার হলেন- সালমা খাতুন ও রুমানা আহমেদ, জাহানারা আলম, নিগার সুলতানা জ্যোতি, নাহিদা আক্তার, লতা ম-ল, সোবহানা মোস্তারি, রিতু মনি ও স্বর্ণা আক্তার। নিলামে সর্বোচ্চ পারিশ্রমিকের ক্যাটাগরিতে অবশ্য বাংলাদেশের কোনো ক্রিকেটারের জায়গা হয়নি। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ পারিশ্রমিক ৪০ লাখ রুপি ভিত্তিমূল্যের ক্যাটাগরিতে আছেন অভিজ্ঞ দুই অলরাউন্ডার সালমা খাতুন ও রুমানা আহমেদ। অনুর্ধ-১৯ বিশ্বকাপে নজর কাড়া ব্যাটার স্বর্ণার ভিত্তিমূল্য ধরা হয়েছে ২০ লাখ রূপি।

এ তিনজন ছাড়া বাকি ছয় ক্রিকেটারের ভিত্তিমূল্য ৩০ লাখ রূপি। ২০১৮ সালে দুটি দল নিয়ে পরীক্ষামূলকভাবে উইমেন্স টি-টোয়েন্টি চ্যালেঞ্জ নামে পুরুষদের আইপিএলের পাশাপাশি একটি আসর চালু করে বিসিসিআই। পরবর্তীতে ২০১৯, ২০২০ ও ২০২২ সালে তিনটি দল নিয়ে নারীদের আইপিএল হিসেবে পরিচিতি পাওয়া এ আসর অনুষ্ঠিত হয়। ডব্লিউপিএলের প্রথম আসরে অংশ নেবে পাঁচটি দল। টুর্নামেন্টের পাঁচ ফ্র্যাঞ্চাইজি হবে দিল্লি, মুম্বাই, গুজরাট, ব্যাঙ্গালুরু ও লক্ষ্ণৌ। ইতোমধ্যে দুই ফ্র্যাঞ্চাইজি দলের নামকরণ করেছে। দল দুটি হচ্ছে গুজরাট জায়ান্টস ও লক্ষ্ণৌ ওয়ারিয়র্স। আগামী ৪ মার্চ থেকে শুরু হবে ডব্লিউপিএল। প্রথমবারের মতো আয়োজিত এ টুর্নামেন্টে সর্বমোট ২২টি ম্যাচ হবে। ম্যাচগুলো মুম্বাইয়ের ব্র্যাবোর্ন এবং ডি ওয়াই পাতিল স্টেডিয়ামে ম্যাচগুলো অনুষ্ঠিত হবে। আগামী ২৬ মার্চ ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক এ টুর্নামেন্টের ফাইনাল অনুষ্ঠিত হবে।