অ্যাম্বার হার্ড বিশ্বের সবচেয়ে নিখুঁত চেহারার নারী

2

মানহানি মামলার পর থেকে প্রতিনিয়ত খবরের শিরোনাম হচ্ছেন হলিউড অভিনেত্রী অ্যাম্বার হার্ড। সেই মামলায় স্বামীর কাছে হেরে গিয়ে আরও বেশি আলোচানায় এসেছেন ‘অ্যাকুয়াম্যান’ অভিনেত্রী। এবার ফেসিয়াল ম্যাপিং বিজ্ঞান বলছে, অ্যাম্বার হার্ডের চেহারা নাকি বিশ্বের সবচেয়ে নিখুঁত চেহারা। লন্ডনের সেন্টার ফর অ্যাডভান্সড ফেসিয়াল কসমেটিক অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি- এর ডা. জুলিয়ান ডি সিলভা বিশ্বের সবচেয়ে নিখুঁত চেহারা বের করতে ‘গ্রিক গোল্ডেন রেশিও’ নামক একটি ফেস-ম্যাপিং পদ্ধতি ব্যবহার করেন।

এ পদ্ধতিতে সৌন্দর্য্য পরিমাপের অনুপাতটি হলো ১.৬১৮। ফেসিয়াল ম্যাপিং কিভাবে কাজ করে সেটিও ব্যাখ্যা করেছেন ডি সিলভা। ১.৬১৮ অনুপাত ‘ফি’ (চযর) হিসেবেও পরিচিত। কারো চোখ, নাক, ঠোঁট, থুতনিসহ মুখের সর্বোপরি কাঠামো ও বৈশিষ্ট্য বুঝতে এ পদ্ধতি ব্যবহার করা হয় এবং বৈজ্ঞানিক উপায়ে সবচেয়ে সুন্দর ব্যক্তি নির্ধারণ করা হয়। ২০১৬ সালে অ্যাম্বার হার্ডের চেহারার ১২টি প্রধান অংশ বিশ্লেষণ করে ডা ডি সিলভা আবিষ্কার করেন যে, গ্রিক গোল্ডেন রেশিও অনুযায়ী অ্যাম্বার হার্ডের মুখ ৯১.৮৫ শতাংশ নিখুঁত। সেসময় ইউএস উইকলিকে বিশেষজ্ঞরা বলেছিলেন, ‘গ্রিকদের মতে, এই অনুপাত প্রকৃতির সবকিছুর মধ্যে আছে এবং হাজার বছর ধরে বিশ্বের সবচেয়ে সুন্দর চেহারার পেছনে এই ফর্মুলাই কাজ করছে।’

তিনি আরো বলেন, ‘হাজার বছর ধরে ‘ফি’ অনুপাতকে সৌন্দর্য্যরে গোপন রহস্য হিসেবে মনে করা হয়েছে। কিন্তু এখন কম্পিউটার ম্যাপিং এর কারণে নারীদের ক্ষেত্রে এর বাস্তব প্রয়োগ আমরা বুঝতে পারবো।’ এছাড়া, একই ফেসিয়াল ম্যাপিং পদ্ধতি ব্যবহার করে ডি সিলভা এও বের করেছেন যে আমেরিকান মডেল কিম কার্দাশিয়ান সবচেয়ে নিখুঁত ভ্রু এর অধিকারী, সুপারমডেল কেট মসের রয়েছে সবচেয়ে সুন্দর কপাল, স্কারলেট জোহানসনের চোখ সবচেয়ে সুন্দর এবং মডেল-অভিনেত্রী এমিলি রাতাজোকোভস্কির ঠোঁট সবচেয়ে সুন্দর। সূত্র: মার্কা।