অস্ট্রেলিয়াকে হারিয়ে বাংলাদেশের মেয়েদের বিশ্বকাপ শুরু

8

প্রথম নারী অনূর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট বিশ্বকাপে অস্ট্রেলিয়াকে হারিয়ে ইতিহাস গড়ল বাংলাদেশের মেয়েরা। অস্ট্রেলিয়াকে ৭ উইকেটের বড় ব্যবধানে হারিয়েছে বাংলাদেশের মেয়েরা। প্রথমে ব্যাট করে ৫ উইকেট হারিয়ে ১৩০ রান সংগ্রহ করে অজিরা। ১৩১ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে ১২ বল হাতে রেখে ৭ উইকেটের বড় জয় পায় বাংলাদেশের মেয়েরা। শনিবার টস জিতে ব্যাট করতে নামে অস্ট্রেলিয়া। ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই উইকেট হারায় অস্ট্রেলিয়া। দলীয় ৭ রানে কেট পেলেকে সাজঘরে ফিরিয়ে বাংলাদেশকে সাফল্য এনে দেন দিশা বিশ্বাস। এরপর দলীয় ২২ রানে ফের উইকেট হারায় অস্ট্রেলিয়া।

অজি ওপেনার পারিস বাউডলারকে আউট করেন বাংলাদেশকে প্রথম সাফল্য এনে দেওয়া দিশা বিশ্বাস। এরপর ক্লেয়ার মুর ও এলা হেওয়ার্ড মিলে তৃতীয় উইকেট জুটিতে ৭৬ রানের জুটি গড়েন। দলীয় ৯৮ রানে ক্লেয়ার মুরকে ফিরিয়ে জুটি ভাঙ্গেন রাবেয়া খান। ৫১ বলে ৫২ রান করে আউট হন ক্লেয়ার মুর। এরপর দলীয় ১০১ ও ১০২ রানে আরও দুই ব্যাটারকে হারায় অস্ট্রেলিয়া। শেষ পর্যন্ত নির্ধারিত ২০ ওভারে ৫ উইকেট হারিয়ে ১৩০ রানের পুঁজি পায় অস্ট্রেলিয়া। অ্যামি স্মিথ ৭ বলে ১৬ ও রিস ম্যাককেনা ৬ বলে ১২ রান করে অপরাজিত থাকেন। বাংলাদেশের পক্ষে মারুফা আক্তার ও দিশা বিশ্বাস নেন ২টি করে উইকেট।

আর রাবেয়া খান নেন ১টি উইকেট। ১৩১ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে ইনিংসের প্রথম বলেই সাজঘরে ফিরে যান ওপেনার মিস্টি শাহা। এরপর ওয়ান ডাউনে নামা দিলারা আক্তারকে সঙ্গে নিয়ে ৬৬ রানের জুটি গড়েন ওপেনার আফিয়া প্রত্যাশা। দলীয় ৬৬ রানে ৪২ বলে ৪০ রান করে আউট হন দিলারা আক্তার। এরপর দ্রুতই সাজঘরে ফিরে যান ওপেনার আফিয়া প্রত্যাশা। দলীয় ৭১ রানে ২২ বলে ২৪ রান করে আউট হন তিনি। স্বর্না আক্তার ও সুমাইয়া আক্তারের হার না মানা ৬১ রানের জুটিতে ১২ বল হাতে রেখে জয় পায় বাংলাদেশের কিশোরীরা। স্বর্না আক্তার ১৮ বলে ২৩ ও সুমাইয়া আক্তার ২৫ বলে ৩১ রানে অপরাজিত থাকেন।