অভিনয়ে নিয়মিত হবেন ‘চম্পা’, যদি…

2

অনেক দিন ধরেই অভিনয়ে নিয়মিত নন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত অভিনেত্রী চম্পা। পরিবার নিয়েই এখন যত ব্যস্ততা তার। কিছুদিন পর এ অভিনেত্রীর যুক্তরাষ্ট্রে যাওয়ার কথা রয়েছে। সেখান থেকে ফিরেই অভিনয়ে নিয়মিত হওয়ার ইচ্ছে আছে, তবে এর জন্য ভালো গল্প ও চরিত্রের অপেক্ষায় থাকবেন বলে জানালেন।

চম্পা বলেন, ‘নিয়মিতই অভিনয়ের প্রস্তাব আসে। কিন্তু সমস্যা হচ্ছে, যে চরিত্রে অভিনয় করব তার প্রতি আগে নিজের আগ্রহ জন্মাতে হবে। যেখানে নিজেকে পরিপূর্ণভাবে খুঁজে পাব, সেই কাজই করব। শুধু কাজই নয়, একজন শিল্পীকে সেটে ঠিকঠাক সম্মান যেন দেওয়া হয় সেই দিকটাও বিবেচনায় থাকবে। এখন আর টুকটাক কাজ করতে চাই না। গল্প ও চরিত্র ভালো লাগলেই অভিনয়ে আবার নিয়মিত হব।’

১৯৮৬ সালে ‘তিন কন্যা’ ছবিতে অভিনয়ের মধ্য দিয়ে চলচ্চিত্রে চম্পার অভিষেক ঘটে। একটি মাত্র ছবিতে অভিনয়ের কথা থাকলেও পরে ইচ্ছার বিরুদ্ধে একের পর এক সিনেমায় অভিনয় করে তিনি পেয়েছেন পাঁচবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার। সিনেমাগুলো হলো- ‘পদ্মা নদীর মাঝি’, ‘অন্য জীবন’, ‘উত্তরের খেপ’, ‘শাস্তি’ ও ‘চন্দ্রগ্রহণ’। এ ছাড়াও এমন কিছু সিনেমায় চম্পা অভিনয় করেছেন, যা তাকে দর্শকের মাঝে যুগ যুগ বাঁচিয়ে রাখবে। বিশেষ কয়েকটির নাম মনে করতে গিয়ে চম্পা জানান ‘ভেজাচোখ’, ‘সহযাত্রী’, ‘নীতিবান’, ‘সরল রেখা’, ‘কাশেম মালার প্রেম’, ‘অবুঝ হৃদয়’, ‘বাসনা’, ‘অন্ধ প্রেম’, ‘প্রেম দিওয়ানা’, ‘বানেছা পরী’, ‘যোগাযোগ’, ‘ত্যাগ’, ‘গর্জন’ চলচ্চিত্রের কথা।