অবশেষে ঢাকায় আসছেন নোরা

2

বলিউড আইটেম গানে নেচে খুব অল্প সময়ে নোরা ফাতেহি পৌঁছে যান খ্যাতির শীর্ষে। গত সেপ্টেম্বরে ঢাকায় আসার কথা কথা থাকলেও তার আসার বিষয়টি নিয়ে জটিলতা তৈরি হয়। অবশেষে সেই জটিলতা কাটলো। ‘গ্লোবাল অ্যাচিভার অ্যাওয়ার্ড ২০২২’ অনুষ্ঠানে যোগ দিতে আগামী ১৮ নভেম্বর ঢাকা আসবেন বলিউডের নৃত্যশিল্পী নোরা ফাতেহি। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন উইমেনস লিডারশিপ কর্পোরেশনের সভাপতি ইসহরাত জাহান মারিয়া।

তিনি জানান, নোরা ফাতেহিকে ঢাকার আনার সব প্রস্তুতি এরইমধ্যে সম্পন্ন করেছেন উইমেনস লিডারশিপ কর্পোরেশন। অনুষ্ঠানটির সঙ্গে আছে ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট প্রতিষ্ঠান ব্ল্যাক লিফ। দেড় হাজারের অধিক মানুষ সেখানে উপস্থিত থাকবেন। এর আগেও ঢাকায় আসার কথা ছিল ‘সাকি সাকি’, ‘দিলবার’ গানে নাচ পরিবেশন করে ঝড় তোলা নোরার। তবে সংস্কৃতি মন্ত্রণালয় থেকে অনুমতি না পাওয়ায় কারণে শেষ পর্যন্ত আর আসা হয়নি তার। মিরর গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও অনুষ্ঠানটির আয়োজক শাহজাহান ভূঁইয়া এমনটাই জানিয়েছিলেন।

বলেছিলেন, অনিবার্য কারণবসত সংস্কৃতি মন্ত্রণালয় বাইরের শিল্পীকে আনার অনুমতি বন্ধ রেখেছে। অনুমতি চালু হলে হয়তো জানুয়ারির দিকে আসবেন তিনি। এরই মধ্যে গত বৃহস্পতিবার রাতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নোরা এক ভিডিও-বার্তা দেন। সেখানে তিনি জানান, ‘গ্লোবাল অ্যাচিভার অ্যাওয়ার্ড ২০২২’ অনুষ্ঠানে যোগ দিতে আগামী ১৮ নভেম্বর ঢাকা আসবেন নোরা। রাজধানীর একটি কনভেনশন সেন্টারে আয়োজিত অনুষ্ঠানে নাচবেন এবং করবেন পুরস্কার বিতরণও। নোরার এই ভিডিও বার্তা দেখেই ক্ষেপেছে বাংলাদেশের মিরর গ্রুপ।

সেপ্টেম্বরে মিরর ম্যাগাজিন আয়োজিত ঢাকার একটি অনুষ্ঠানে অংশ নেওয়ার কথা ছিল নোরার। ১৫ লাখ রুপি অগ্রিমও দেওয়া হয়েছিল তাকে। কিন্তু সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের অনুমতি না পাওয়ায় নোরা সেই অনুষ্ঠানে অংশ নিতে পারেননি। পরে অগ্রিম দেওয়া অর্থ (১৫ লাখ রুপি) ফেরত নিতে মিরর গ্রুপ থেকে যোগাযোগ করা হলেও নোরার পক্ষ থেকে কোনো জবাব আসেনি। আর তাই তাকে আইনি নোটিশ পাঠানো হয়েছে। এ বিষয়ে প্রতিষ্ঠানটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক শাজাহান ভূঁইয়া সাজু বলেন, ‘ঢাকা থেকে লিগ্যাল নোটিশ পাঠানো হয়েছে বলিউডের নোরা ফাতেহিকে। আইনি নোটিশে আমাদের অর্থ ফেরত দিতে বলা হয়েছে। সেটি পরিশোধের আগে নভেম্বরে নোরা ফাতেহিকে ঢাকার অনুষ্ঠানটিতে যোগ না দেওয়ার অনুরোধও করা হয়।

নোরা সেটা না মানলে আমরা আইনি ব্যবস্থা নেব।’ ৯ অক্টোবর বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী আমিনুল ইসলাম রাসেলের মাধ্যমে ই-মেইলে পাঠানো এ নোটিশের কারণ ছিল দুটি- অগ্রিম নেওয়া অর্থ ফেরত পাওয়া এবং অর্থ ফেরত না দিলে ঢাকার অন্য কোনো ইভেন্টে অংশ না নেওয়ার অনুরোধ। তবে এসব ঝামেলা এখন মিটে গেছে। গত শনিবার এক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে উইমেনস লিডারশিপ করপোরেশন (মৃত্তিকা মারিয়া) ও মিরর গ্রুপ জানিয়েছে, তারা একটি সমঝোতায় এসেছে। অতএব নোরার বাংলাদেশে আসায় আর কোনো বাঁধাই রইল না। এখন আর নোরার ভক্তদের জানুয়ারি পর্যন্ত হয়তো অপেক্ষা করতে হবে না নোরার ভক্তদের। নভেম্বরেই তারা দেখা পাবে তাদের বহুল কাক্সিক্ষত অভিনেত্রীকে।

সংবাদ সম্মেলনে মিরর গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও অনুষ্ঠানটির আয়োজক শাহজাহান ভূঁইয়া বলেন, ২০০৫ সালে আমরা আমাদের মিরর ম্যাগাজিন শুরু করি। আমরাই প্রথম ব্রাইডাল ফ্যাস্টিবল করি। আমরা এখন পর্যন্ত অনেক নামকরা সব আর্টিস্ট এনেছি। এরপরই নোরা ফাতেহিকে আনার চেষ্টা করেছি। তবে কিছু ভুল বুঝাবুঝির কারণে শেষ পর্যন্ত আনতে পারেনি। এখন আমরা উইমেনস লিডারশিপ কর্পোরেশনের সঙ্গে কথা বলে একসঙ্গে কাজ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। আমরা আশা করছি আগামীতে আমরা একে অপরের পাশে থেকে কাজ করব।