অনিয়মের প্রতিবাদ জানালেন আরিফিন শুভ

59

01তিক্ত অভিজ্ঞতার সম্মুখীন হয়েছেন জনপ্রিয় চিত্রনায়ক আরিফিন শুভ। কাজের উদ্দেশে বিমানে করে কক্সবাজার যাওয়ার কথা ছিলো তার। কিন্তু বিমান বন্দরে ঘটে বিড়ম্বনা, শিকার হন ভোগান্তির। রিজেন্ট এয়ারওয়েজের সেবার মান নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন শুভ। তাদের গাফিলতির প্রতিবাদও করেছেন এই নায়ক। গত শুক্রবার কক্সবাজার যাওয়ার উদ্দেশে শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে গিয়ে নির্ধারিত বিমানের অপেক্ষায় ছিলেন শুভ। কিন্তু কে জানতো তার কপালে লেখা ছিলো দীর্ঘ দুর্ভোগ! এদিন রাতে ফেসবুকে তিক্ত অভিজ্ঞতা নিয়ে পোস্ট দিয়েছেন আলোচিত এই নায়ক। সেখানে শুভ লিখেছেন, ‘আমি রিজেন্ট এয়ারওয়েজের ফ্লাইট অপারেশনের তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি। তাদের কাছে প্যাসেঞ্জারের সময়ের কোনো মূল্য নেই, আর সেটা আজ আমার সাথেও প্রমাণিত হল। ঢাকা-কক্সবাজারের আরএক্স-৭৪১ ফ্লাইট ছিলো (১৩ মে) সকাল সাড়ে ১১টায়। সকাল সাড়ে ৯টা থেকে এয়ারপোর্টে বসে আছি। প্রথমে ১১টা ৩৭মিনিটে জানালো তাদের ক্যারিয়ার নেই, তাই দেরি হচ্ছে। দেড়টার পর থেকে বলা শুরু করলো আবহাওয়া খারাপের জন্য ফ্লাই করতে পারবে না। আমাদের প্যাসেঞ্জারদের সামনে বিমান, নভো এয়ারওয়েজের অনেকগুলো ডমেস্টিক ফ্লাইট বেড়িয়ে গেলো। আমি প্রশ্ন করলে গ্রাউন্ড স্টাফ বললো, ওটা অন্য রুটের। অথচ নভো এয়ারওয়েজের ভিকিউ-৯৩৩ আর ভিকিউ-৯৩১ দুটিই কক্সবাজারের ফ্লাইট ছিলো। প্রত্যেকবার জিজ্ঞেস করলে বলছিলো, আর মাত্র ২০-২৫ মিনিট লাগবে। চোখের সামনে কক্সবাজারের শেষ ফ্লাইটটাও চলে গেলো, যেটা আগে জানালেও ধরা যেতো। সবশেষ বিকেল সাড়ে ৫টায় ঘোষণা করলো ফ্লাইট বাতিল করা হয়েছে। কিন্তু শেষ পর্যন্ত প্রতিটি প্যাসেঞ্জার জিজ্ঞেস করে গেছেন, কেন ফ্লাই করতে পারবে না? অথচ তারা কোনো সদুত্তর দিতে পারেনি। এ ঘটনার পর ক্ষুব্ধ আরিফিন শুভ প্রতিজ্ঞা করেছেন যে, রিজেন্ট এয়ারওয়েজে তিনি আর কোনোদিন ভ্রমন করবেন না।