অজয়ের সিনেমার বিরুদ্ধে বিমানচালকেদের ক্ষোভ

8

বলিউড সুপারস্টার অজয় দেবগন। অভিনয়ের পাশাপাশি একের পর এক সিনেমা প্রযোজনা-পরিচালনাও করে চলেছেন তিনি। সম্প্রতি মুক্তি পেয়েছে এই অভিনেতার নতুন সিনেমা ‘রানওয়ে ৩৪’। হিন্দুস্তান টাইমসের খবরে বলা হয়েছে, সিনেমাটি নিয়ে বির্তকের মুখে পড়েছেন অজয় দেবগন। ভারতের বিমানচালকদের সংগঠন এই সিনেমা নিয়ে আপত্তি জানিয়েছে। ফেডারেশন অব ইন্ডিয়ান পাইলটসের সেক্রেটারি ক্যাপ্টেন সিএস রান্ধাওয়া একটি বিবৃতি জারি করে সিনেমাটির বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন। তিনি জানান, সিনেমায় বিমানচালকের চরিত্রকে যেভাবে তুলে ধরা হয়েছে তা একেবারে অবাস্তব। অজয় দেবগন পরিচালিত ও প্রযোজিত ‘রানওয়ে ৩৪’ সিনেমায় খোদ অজয় ছাড়াও অভিনয় করেছেন অমিতাভ বচ্চন, রকুলপ্রীত সিং-এর মতো তারকারা। সিনেমাটির প্রেক্ষাপটে রয়েছে দোহা থেকে কোচিগামী এক বিমান।

প্রতিকূল আবহাওয়ার জন্য বিমানটি অবতরণের সময় ভেঙে পড়ে, যার ফলে বেশ কিছু যাত্রীর মৃত্যু হয়। ২০১৫ সালের আগস্ট মাসের ঘটনা হিসেবে সিনেমায় তা তুলে ধরা হয়েছে। ফেডারেশন অব ইন্ডিয়ান পাইলটসের সেক্রেটারি ক্যাপ্টেন সিএস রানধাওয়া ক্ষোভ উগরে দিয়ে জানিয়েছেন, ‘বিমানচালকদের পেশাকে অবাস্তবভাবে দেখানো হয়েছে এই সিনেমায়। যা কিনা যাত্রীদের মনে প্রভাব ফেলতে পারে। আমরা সকলেই বিনোদন উপভোগ করতে চাই এবং চলচ্চিত্র তৈরির ক্ষেত্রে শৈল্পিক ছাড়পত্র থাকে সেটাও মেনে নিচ্ছি।

কিন্তু আমাদের মতো এমন অসাধারণ একটা পেশার উপর ভিত্তি করে সিনেমা তৈরি করে, সেখানে গাঁজাখুরি কিছু বিষয় যোগ করে সেটাকে ‘বাস্তব প্রেক্ষাপটে বানানো’ বলে দাবি করা কখনোই উচিত নয়। যারা প্রতিদিন হাজার হাজার যাত্রীদের দায়িত্ব নিয়ে গন্তব্যে সুরক্ষিতভাবে পৌঁছে দেন, এটা সেই সব পাইলটদের অপমান করা।’ এই সিনেমা সত্য ঘটনা অবলম্বনে তৈরি, নির্মাতাদের এমন দাবি উড়িয়ে দিয়েছে ফেডারেশন। সিনেমার চরিত্রটি পাইলটদের পেশাকে যথাযথভাবে উপস্থাপিত করতে পারেনি, সিনেমায় বিমানচালকদের পেশাকে বিকৃতভাবে তুলে ধরা হয়েছে তা কখনই গ্রহণযোগ্য নয় বলে বিবৃতিতে জানিয়েছেন বিমানচালক সিএস রানধাওয়া।